নিবন্ধ লেখার নিয়ম-কানুনসমূহ

অনুগ্রহপূর্বক "অসামান্য" প্লাটফর্মের জন্য লেখা শুরুর পূর্বে নিচের লেখাগুলো ভালো করে পড়ে নিবেন।

  1. নিবন্ধটি অনন্য হতে হবে, লেখার মধ্যে কপি পেস্ট কোনোক্রমেই গ্রহণযোগ্য নয়। অন্তর্জালে অন্য যেকোনো সাইটে পূর্বে প্রকাশিত লেখা অননুমোদিত।
  2. জাতি, জাতীয়তা, ধর্ম, বর্ণ, গোত্রকে আঘাত করে কোনোরূপ লেখা গ্রহণযোগ্য নয়। দেশীয় রাজনীতি সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। আন্তর্জাতিক রাজনীতি নিয়ে লিখতে চাইলে সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম বিশ্লেষণ কাম্য, তবে সেক্ষেত্রেও নিরপেক্ষতা অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে।
  3. নিবন্ধে শব্দসংখ্যা সর্বনিম্ন ১ হাজার হতে হবে। এই সংখ্যার মধ্যে শিরোনাম, উপ-শিরোনাম, ছবির ক্যাপশন ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত হবে না। ১২০০-১৪০০ শব্দ মোটামুটি আদর্শ, ১৮০০ শব্দ যাতে অতিক্রম না করে। শব্দসংখ্যা এর বেশি হলে একাধিক পর্বে লেখার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।
  4. তথ্যের উৎস হিসেবে নির্ভরযোগ্য সূত্রের উল্লেখ থাকতে হবে। উইকিপিডিয়া তথ্যসূত্র হিসেবে গ্রহণযোগ্য নয়। বাংলা কোনো ব্যক্তিগত ব্লগ বা সাইট সূত্র হিসেবে অ-ব্যবহারযোগ্য। তথ্যসূত্রে ইংরেজি কোনো ব্যক্তিগত ব্লগ বা সাইটকে ব্যবহার করতে চাইলে তাকেও যথেষ্ট নির্ভরযোগ্য হতে হবে। 
  5. তথ্যসূত্র একাধিক দিতে হবে, নচেৎ এটি অনুবাদ বা কপি করার মত হয়ে যায়। নিবন্ধের শেষে সবগুলো তথ্যসূত্র একবারে দিতে হবে, এটি বাধ্যতামূলক। আর লেখার মাঝেও তথ্যের উৎসগুলো হাইপারলিংক করে দিতে পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। এতে লেখার নির্ভরযোগ্যতা সম্বন্ধে নিশ্চিত হওয়া যায়। 
  6. আর গ্রন্থসূত্র দিতে চাইলে তথা কোনো বইকে উৎস হিসেবে ব্যবহার করতে চাইলে, বই থেকে যে তথ্য নেয়া হয়েছে, সেই বিশেষ তথ্যটির পাশে নাম্বার দিয়ে নিচে টীকা আকারে গ্রন্থসূত্রে উল্লেখ করতে হবে। গ্রন্থসূত্রের ফরম্যাট: বইয়ের নাম*, লেখকের নাম*, প্রকাশনালয়ের নাম*, ISBN নাম্বার, সংস্করণ সংখ্যা বা সাল, পৃষ্ঠা, প্রকাশের স্থান ইত্যাদি। * চিহ্নিতগুলো আবশ্যক।
  7. নিবন্ধের মূল উদ্দিষ্ট শব্দটিই হচ্ছে ফোকাস কি-ওয়ার্ড। ফোকাস কি-ওয়ার্ডটি যাতে লেখার শিরোনাম (টাইটেল), উপ-শিরোনাম (সাব-হেডিং), প্রথম প্যারাগ্রাফ এবং ছবির ক্যাপশন ও Alter Text এ বিদ্যমান থাকে তা নিশ্চিত করতে হবে। মূল নিবন্ধের মধ্যেও পর্যাপ্ত পরিমাণে থাকতে হবে। 
  8. শতকরা প্রায় আশি-নব্বই ভাগ পাঠকই মোবাইল ফোনে নিবন্ধ পড়েন। প্যারাগ্রাফের আকার বড় হলে মোবাইলে পড়তে বিরক্তি আসতে পারে। ছোট ছোট প্যারায় লিখলে পাঠকদের পড়তে সুবিধা হয়। তাই, প্রতিটি প্যারাগ্রাফের শব্দসংখ্যা ৫০-৭৫ রাখার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।
  9. প্রতিটি নিবন্ধে একটি ফিচার ছবি এবং সর্বনিম্ন ৫টি সাধারণ ছবি দিতে হবে। এর কমে গ্রহণীয় নয়। ফিচার ছবির প্রস্থ কমপক্ষে ১২০০ পিক্সেল হতে হবে এবং সাধারণ ছবিগুলোর প্রস্থ ১০০০ পিক্সেল হতে হবে। ফিচার ছবির অনুপাত ১৬:৯ উত্তম। ছবি নিজের হলে সর্বোত্তম, নতুবা পাবলিক ডোমেইন ছবি ব্যবহার করতে উৎসাহিত করা হচ্ছে। অন্যথায়, বাইরের সাইট থেকে ছবি নিলে সেই সাইটের উৎস উল্লেখ করে দিতে হবে। যদি চিত্রগ্রাহকের নাম দেওয়া সম্ভব হয়, তবে তাঁর নামও উল্লেখ করতে হবে। আর সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ হল, কোনো অশালীন ছবি গ্রহণ করা হবে না।
  10. নিবন্ধের মাঝে উক্তি যুক্ত করা যেতে পারে। তবে এক্ষেত্রেও সূত্র বিষয়ে যত্নবান হতে হবে। যদি ওয়েবসাইট থেকে নেওয়া হয়, তবে অবশ্যই সাধারণ নিয়মে হাইপারলিঙ্ক করতে হবে। আর বই থেকে নিলে গ্রন্থসূত্র যেভাবে দেয়া হয়, সেভাবে দিতে হবে। 
  11. লেখা পাঠানোর পরে সর্বনিম্ন ১ সপ্তাহ সময় নিয়ে সম্পাদনা পর্ষদ থেকে তিনটি সিদ্ধান্তের কোনো একটি জানিয়ে দেয়া হবে। ১. প্রকাশের উপযুক্ত, ২. সম্পাদনা প্রয়োজন অথবা ৩. বাতিল। তবে সম্পাদনা পর্ষদ কোনো বিষয়কে সাম্প্রতিক বা চলতি বিষয় বিবেচনা করলে নিবন্ধ দ্রুত প্রকাশও করা হতে পারে। 
  12. বাক্যের বুনন এবং লেখার মান নিশ্চিতকরণে অসামান্য সম্পাদনা পর্ষদ আপনার নিবন্ধে প্রয়োজনীয় যেকোনো রূপ পরিবর্তন এর অধিকার রাখে; এমনকি শিরোনাম পর্যন্ত। লেখা জমা দেওয়ার পরে সাধারণত লেখকের পক্ষ থেকে কোনোরূপ সম্পাদনা করা যাবে না। 
  13. অসামান্য কর্তৃপক্ষ লেখকের নিবন্ধের অডিয়ো-ভিডিয়ো ভার্সন বানাতে পারবে। এজন্যে লেখককেও সুযোগ দেয়া হবে। লেখক অপারগতা জানালে অথবা লেখকের তৈরিকৃত মিডিয়া ফাইলটি অসামান্য কর্তৃপক্ষ মানসম্পন্ন মনে না করলে, তারা ব্যবস্থা নিতে পারবে। নিবন্ধের অডিয়ো ভার্সন তৈরি করে সাইটে দেয়া এবং অনুরূপভাবে, ভিডিয়ো ইউটিউব চ্যানেলে দেওয়ার ক্ষমতা অসামান্য কর্তৃপক্ষের থাকবে। 
  14. যেকোনো নিবন্ধ লেখা শুরু করার পূর্বে সাধারণ লেখকগণের জন্য নির্দেশনা হল, অসামান্যের প্রধান সম্পাদকের থেকে নিবন্ধের মূল বিষয়টি (টপিক) নিশ্চিত করে নিতে হবে। আর নতুন লেখক হিসেবে অসামান্যতে যোগ দিতে চাইলে, অসামান্যের প্রধান নির্বাহীর সাথে যোগাযোগ করতে হবে। 

*** উপরের নিয়মগুলোর যেকোনো সময় যেকোনো রকমের পরিবর্তন করার অধিকার অসামান্য কর্তৃপক্ষের আছে।



বর্তমান নিয়ম-কানুনসমূহের বলবৎ হওয়ার তারিখ: ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০। 
error: Content is protected !!