Old Women Sitting Alone

ম্যাচিউরিটি কী? ম্যাচিউর হওয়ার ১০ টি বাস্তবিক উপায়

মশিউর রাকিব
3.6
(14)
Bookmark

No account yet? Register

দিন যতই যাচ্ছে বয়সটা ততই বাড়ছে! কিন্তু  বয়স বাড়ার সাথে সাথে নিজের অভ্যন্তরীণ পরিবর্তন যে হচ্ছে না। যার ফলে না পারছি সমাজে কারো সাথে মিশতে, না পারছি চাকরিতে কারো সাথে সুসম্পর্ক গড়তে। কী যে করি! অবশেষে বুঝতে পারলাম, আমি যে এখনও ম্যাচিউর নই।

ম্যাচিউরিটি শব্দটির সাথে আমরা কমবেশি সবাই পরিচিত। শব্দটি মূলত ইংরেজি হলেও বাংলায় বেশ প্রচলিত হয়ে গেছে। কেউ যদি “আমি সবসময় সঠিক, এই ধারণা বা মত পোষণ না করে নিজের ভুলগুলোকে গঠনমূলক সমালোচনা করে কিংবা কারো বাহ্যিক অবস্থা দেখে বিচার না করে তার সম্পর্কে সঠিক ধারণা নিয়ে তাকে বিচার করে” তখনই আমরা সাধারণভাবে ধরে নিই লোকটি ম্যাচিউর।

ম্যাচিউরিটি ব্যক্তিগত ও পেশাগত জীবনে খুব ভূমিকা রাখে। তাই ম্যাচিউরিটি কী, তা ভালো করে জানা এবং নিজেকে ম্যাচিউর হিসেবে গড়ে তোলা খুবই জরুরি।

ম্যাচিউরিটি কী? আপনি কী ম্যাচিউর? 

এই নিবন্ধে আমরা জানব ম্যাচিউরিটি কী। এবং কীভাবে আমরা ম্যাচিউর হওয়ার পথে এগিয়ে যেতে পারি।

অসামান্যতে লিখুন

ম্যাচিউরিটি কী?

ম্যাচিউরিটি অর্থ পরিপক্বতা। মনোবিজ্ঞানের মতে, ম্যাচিউরিটি হলো পরিবেশ ও পরিস্থিতির সঠিক সময় সম্পর্কে সচেতন থাকা এবং কখন কী করা উচিত তা বুঝতে পারা। 

চিত্রসূত্র: Pexels

আরো সহজ ভাষায় বলতে গেলে, মনে বিপরীত ব্যাপারগুলো হাসিমুখে মেনে নেওয়ার নামই হলো ম্যাচিউরিটি বা পরিপক্বতা। যখন আপনি কথা বলার চেয়ে শোনাকে বেশি প্রাধান্য দিবেন, তখন বুঝবেন আপনি ম্যাচিউর।

ডেটা বিজ্ঞানী কেটিস হোবান ম্যাচিউরিটি বোঝাতে তিনটি শব্দের কথা বলেছেন – দায়বদ্ধতা, প্রতিক্রিয়াশীলতা এবং স্থিতিস্থাপকতা।  

নিজের কার্যকলাপের প্রতি দায়বদ্ধ থাকা। কারো ভুলত্রুটির প্রতি সংবেদনশীল হওয়া এবং অন্যের প্রতি মনোযোগী হওয়ার চেষ্টা করা। পরিবর্তন এবং পরিস্থিতির সাথে নিজেকে মানিয়ে নেয়ার ক্ষমতা অর্জন করা। 

ম্যাচিউর হওয়ার উপায় কী কী?

কে না চায় নিজেকে একটু ভিন্নভাবে সবার কাছে উপস্থাপন করতে? সকলেই চায়। 

বলুন তো কীভাবে অন্যদের হৃদয়ের অন্তস্তল জায়গা করে নেয়া যায়? কীভাবে সবার প্রিয় মানুষ হয়ে ওঠা যায়? 

হ্যাঁ, যখন আমরা অন্যদের প্রতি সহানুভূতিশীল হবো, অপর দিকের মানুষটাকে বোঝার চেষ্টা করব তখন আমরা অন্যদের মনে জায়গা করে নিতে শুরু করব। আমরা হয়ে উঠবো ম্যাচিউর। 

চলুন জেনে নিই ম্যাচিউর হওয়ার উপায় কী কী।  

১. লক্ষ্য নির্ধারণ করা

লক্ষ্য নির্ধারণ
লক্ষ্য নির্ধারণ । চিত্রসূত্র : Pexels

ম্যাচিউর হতে হলে প্রথমেই আমাদের একটি সঠিক লক্ষ্য নির্ধারণ করে নিতে হবে। জীবননদে সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য ছাড়া আমাদের অবস্থা হবে মাঝনদীতে দিক না খুঁজে পাওয়া নাবিকের মতো দিশেহারা।

২. লক্ষ্যের প্রতি অবিচল থাকা

লক্ষ্যের প্রতি অবিচল থাকা
লক্ষ্যের প্রতি অবিচল থাকা। চিত্রসূত্র : Pexels

লক্ষ্য নির্ধারণের পর আমাদেরকে লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য কঠিন পরিশ্রম করে যেতে হবে। নিজের লক্ষ্যকে কেবল কল্পনায় সীমাবদ্ধ না রেখে তাকে বাস্তবের মাটিতে রূপ দেয়ার জন্য কাজ করতে হবে।

৩. বলার চেয়ে শ্রবণে অধিক গুরুত্ব দেয়া

কথা বলার চেয়ে শোনাকে অধিক গুরুত্ব দেয়া
কথা বলার চেয়ে শোনাকে অধিক গুরুত্ব দেয়া । চিত্রসূত্র : Pexels

ম্যাচিউর হওয়ার রহস্য জানতে চান? তবে নিজে বলার থেকে অপরজনের কথা শোনাকে অধিক গুরত্ব দিন। একজন ভালো শ্রোতা হতে শিখুন।

৪.অন্যদের মতামতকে সম্মান করতে শেখা

অন্যের মতামতের প্রতি সম্মান প্রদর্শন
অন্যের মতামতের প্রতি সম্মান প্রদর্শন । চিত্রসূত্র : Pexels

সবারই নিজস্ব মতামত রয়েছে। কিন্তু সবসময় নিজের মতামতকে অধিক গুরুত্ব দিয়ে অন্যের মতামতকে ছোট করে দেখা একজন ব্যক্তির ম্যাচিউর হওয়ার পথে অন্যতম বাঁধা। কারো মতামতের সাথে আপনার মতামতের অমিল থাকতেই পারে পারে। কিন্তু তাই বলে অযথা তর্কে না জড়িয়ে অন্যদের মতামতকে সম্মান করা শিখতে হবে। 

৫. অভিযোগ করা এবং অজুহাত না দেখানো  

যা নেই তার জন্য অভিযোগ করতে গিয়ে যা আছে তার আসল সুখই যে খোঁজা হয় না। একজন ম্যাচিউর ব্যক্তি সবসময় নিজের যা আছে তা নিয়ে সন্তুষ্ট থাকার চেষ্টা করে। 

অপরদিকে অজুহাত হলো একটি শর্টকাট পথ। নিজের দায়িত্ব থেকে পালিয়ে বেড়াতে, নিজের দোষগুলো আড়াল করতে আমরা অনেক সময় অজুহাত দিয়ে থাকি। কিন্তু ম্যাচিউরিটির পথে হাঁটতে হলে আমাদেরকে অজুহাত দেয়া বন্ধ করতে হবে। 

৬.নিজের ত্রুটি এবং দৌর্বল্য স্বীকার করা

একজন ম্যাচিউর ব্যক্তি কখনও নিজেকে ভুলের ঊর্ধ্বে মনে করে না এবং নিজেদের মতামতকে সর্বাধিক সত্য বলে জাহির করে না। কেননা একজন ম্যাচিউর ব্যক্তি নিজের দুর্বলতা এবং ত্রুটি সম্পর্কে জানে এবং সেগুলো সংশোধন করার চেষ্টা করে থাকে। 

ফলে নিজেকে সবকিছুতে সক্ষম প্রমাণ করতে গিয়ে যখন নিজের অক্ষমতা বেরিয়ে আসে তখন তাদেরকে লজ্জিত হতে হয় না। তাই নিজের ভুল স্বীকার করা এবং তা থেকে উত্তরণের পথ খোঁজার চেষ্টা আমাদেরকে ম্যাচিউর হতে সাহায্য করবে। 

৭. কথা দিয়ে কথা রাখার চেষ্টা করা

কথা দিয়ে কথা রাখা
কথা দিয়ে কথা রাখা । চিত্রসূত্র : Unsplash

আপনি যা পারবেন না, যা আপনার দ্বারা হবে না তা করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে কী লাভ? একজন ম্যাচিউর ব্যক্তি অর্থহীন প্রতিশ্রুতি না দিয়ে একমাত্র যা তার দ্বারা সম্ভব কেবল সেগুলোই করার চেষ্টা করে। ম্যাচিউরিটি অর্জনের পথে আমাদেরকে কথা দিয়ে কথা রাখা শিখতে হবে। 

৮.আবেগ নিয়ন্ত্রণ করা

আবেগ নিয়ন্ত্রন
আবেগ নিয়ন্ত্রণ—চিত্রসূত্র: Pexels

অপরজনের কথা শুনে রেগে যাওয়ার পরিবর্তে একজন ম্যাচিউর, ব্যক্তি নিজের আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হয়ে থাকে। কারণ সে জানে আবেগ দিয়ে সব হয় না, বাস্তবতা উপলব্ধি করতে হয়। আবেগের বশবর্তী না হয়ে বাস্তবতা উপলব্ধি করে সিদ্ধান্ত নেয়া শিখতে হবে। 

৯. কতটা জানি না তা উপলব্ধি করতে শেখা 

পৃথিবীর কেউই সবকিছু জানে না, সবার জানার মধ্যে রয়েছে সীমাবদ্ধতা। আর একজন ম্যাচিউর ব্যক্তি সবসময় উপলব্ধি করে বাস্তব দুনিয়ায় কত কিছুই তার অজানা। ফলে তার জানার কৌতূহল বেড়ে যায়। জানার জন্য সে তখন ছোটবড় সবার কাছ থেকেই ধারণা লাভ করতে উদ্বুদ্ধ হয়। জ্ঞানের প্রতি একজন ব্যক্তির এই সীমাহীন কৌতূহল তাকে করে তোলে অধিক ম্যাচিউর। 

১০. সমালোচনা এবং ঈর্ষা এড়িয়ে চলা   

সমালোচনা এড়িয়ে চলা
সমালোচনা এড়িয়ে চলা— চিত্রসূত্র: Unsplash

একজন ম্যাচিউর ব্যক্তি অন্যের দোষত্রুটি নিয়ে সমালোচনায় মাতোয়ারা হয় না। বরং তার সাফল্য নিয়ে প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে নির্মলানন্দ খুঁজে নিতে পারে। আবার কারো সাফল্যে ঈর্ষান্বিত না হয়ে তার থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে তার হাঁটা পথ অনুসরণ করার মানসিকতা রাখে। 

Elder, Age, Old, Life, Portrait, Elderly, Person, Man
ম্যাচিউরিটি বয়সের সাথে আসে না বরং জীবনের বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে আসে। চিত্রসূত্র : Pixabay

ইংরেজিতে একটি প্রবাদ আছে, “Maturity comes with experience, not age”.। অর্থাৎ ম্যাচিউরিটি বয়সের সাথে আসে না বরং জীবনের বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে আসে। খুব সাধারণ অর্থে বলতে গেলে, পরিপক্বতার বয়সের সাথে কোনো সম্পর্ক নেই। সম্পর্ক রয়েছে কোনো ব্যক্তি একটি নির্দিষ্ট সময়ে, নির্দিষ্ট পরিস্থিতিতে কী রূপ প্রতিক্রিয়া দেখায় তার সাথে।

কেউ চাইলেই নিজেকে একনাগাড়ে ম্যাচিউরড করে তুলতে পারে না। তার জন্য দরকার প্রতিনিয়ত ম্যাচিউরিটির অন্যতম গুণগুলো নিজের মধ্যে ধারণ করার চেষ্টা অব্যাহত রাখা। 

ফিচার চিত্রসূত্র : Pixabay
তথ্যসূত্র :
১। Times of India
২। Huff Post
৩। Inspiring Tips
৪। Brightside

আপনার অনুভূতি জানান

Follow us on social media!

আর্টিকেলটি শেয়ার করতে:
2 Thoughts on ম্যাচিউরিটি কী? ম্যাচিউর হওয়ার ১০ টি বাস্তবিক উপায়
    ATM Fuad Hasan
    5 Oct 2020
    2:38pm

    The post was good 👏

    2
    0
    Moshiur Rakib
    12 Oct 2020
    8:58pm

    ধন্যবাদ! 🥰

    1
    0

কমেন্ট করুন


সম্পর্কিত নিবন্ধসমূহ:

error: Content is protected !!